1. 108newsbangla@gmail.com : Mishti Sutradhar : Mishti Sutradhar
  2. apbiman2015@gmail.com : Ashish Poddar Biman : Ashish Poddar Biman
  3. ganasonghoti@gmail.com : Daily Ganasonghoti : Daily Ganasonghoti
  4. jmitdomain@gmail.com : admin admin : admin admin
  5. sumonto108@gmail.com : Sumonto Sutradhar : Sumonto Sutradhar
অনির্বচনীয় সৌন্দর্য- শোভিত নারীশিক্ষার এক নান্দনিক প্রতিষ্ঠান সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ, ফরিদপুর - Ganasonghoti
বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১১:৫০ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্তঃ
ফরিদপুরে শিক্ষকের চুরি যাওয়া পেনশনের ১০ লাখ টাকা উদ্ধার, দুই চোর আটক ফরিদপুরে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক এম এ আজিজ আর আমাদের মধ্যে নেই সদরপুরে চেয়ারম্যানের বাড়ীতে ঢুকে হামলায় শিশুপুত্র নিহত, স্ত্রী আহত : আত্মহত্যা করেছে হামলাকারী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ফরিদপুরে আওয়ামীলীগের নানা কর্মসূচি পালিত আইনশৃঙ্খলা কার্যক্রম বেগবানে ফরিদপুরে জেলা পুলিশকে জমি দিলেন জমিদার পরিবার ফরিদপুরে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কবি জসীম উদ্দীন ছিলেন সমকালীন এক আধুনিক কবি- প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী ফরিদপুরে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের কাজে নিন্ম মানের মালামাল ব্যবহার ফরিদপুরে ৪ হাজার ৮শ’ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার: ১ লাখ টাকা জরিমানা
শিরোনাম :
ফরিদপুরে শিক্ষকের চুরি যাওয়া পেনশনের ১০ লাখ টাকা উদ্ধার, দুই চোর আটক ফরিদপুরে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক এম এ আজিজ আর আমাদের মধ্যে নেই সদরপুরে চেয়ারম্যানের বাড়ীতে ঢুকে হামলায় শিশুপুত্র নিহত, স্ত্রী আহত : আত্মহত্যা করেছে হামলাকারী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ফরিদপুরে আওয়ামীলীগের নানা কর্মসূচি পালিত আইনশৃঙ্খলা কার্যক্রম বেগবানে ফরিদপুরে জেলা পুলিশকে জমি দিলেন জমিদার পরিবার ফরিদপুরে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কবি জসীম উদ্দীন ছিলেন সমকালীন এক আধুনিক কবি- প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী ফরিদপুরে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের কাজে নিন্ম মানের মালামাল ব্যবহার ফরিদপুরে ৪ হাজার ৮শ’ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার: ১ লাখ টাকা জরিমানা

অনির্বচনীয় সৌন্দর্য- শোভিত নারীশিক্ষার এক নান্দনিক প্রতিষ্ঠান সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ, ফরিদপুর

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১২৩৪ Time View
নিজস্ব প্রতিনিধি :
অনির্বচনীয় সৌন্দর্য- শোভিত নারীশিক্ষার এক নান্দনিক প্রতিষ্ঠান সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ, ফরিদপুর।
২০১৬ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে নির্বাচিত ফরিদপুর জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর স্থাপিত হয় ১৯৬৬ সালে । ১মার্চ ১৯৮০ সালে  সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজটি জাতীয়করন করা হয়। কলেজটির প্রতিষ্ঠাতা স্বর্গীয় শ্রী চন্দ্রকান্ত নাথ।বর্তমানে ফরিদপুর জেলার ঝিলটুলি এলাকায় ২.৪৯৭৮ একর জায়গার উপর সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর এর ১টি প্রশাসনিক কাম একাডেমিক ভবন, ২টি একাডেমিক ভবন, ১টি অধ্যক্ষের বাসভবন, শাপলা ও শিউলি নামের ২ টি ছাত্রী হোস্টেল রয়েছে।
সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ এর একটি সংক্ষিপ্ত ইতিহাস ষাটের দশকে এ দেশের তৎকালীন প্রদেশের রাজধানী ঢাকা ব্যতীত অন্যান্য জেলা শহরে মাত্র হাতে গোনা কয়েকটি স্থানে মহিলাদের জন্য পৃথক উচ্চশিক্ষার সুযোগ ছিল।১৯৪৭ সালে দেশে বিভক্তির পর তৎকালীন ফরিদপুর জেলা তে মহিলাদের জন্য পৃথক উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা ছিল না অবশ্য এমনিতেই সমগ্র জেলাতে মাত্র ৬ টি কলেজ ছিল। মাধ্যমিক পরীক্ষা পাসের পর শুধুমাত্র সহশিক্ষা কলেজগুলোতে মেয়েদের পড়ার একমাত্র সুযোগ ছিল। সহশিক্ষার কানের রক্ষণশীল অভিভাবকরা তাদের মেয়েদের উচ্চ শিক্ষা প্রদানের ব্যাপারে স্বাভাবিকভাবে নিরুৎসাহ বোধ করতেন। এ প্রেক্ষাপটে ষাটের দশকের মাঝামাঝি সময়ে ফরিদপুর শহরে একটি ছবি ব্যক্তি মহিলাদের জন্য একটি পৃথক কলেজ প্রতিষ্ঠার চিন্তা ভাবনা শুরু করেন কিন্তু চিন্তাভাবনাকে বাস্তবে রূপদান করার জন্য প্রয়োজন ছিল উৎসাহী লোকের এবং প্রয়োজন ছিল পৃষ্ঠপোষকতার। ঠিক সেই মুহুর্তে  ফরিদপুরের তৎকালিক  ডেপুটি কমিশনার জনাব এম, কে আনোয়ার এগিয়ে এলেন। তিনি ফরিদপুর শহরের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ শিক্ষাবিদ ও সমাজ বিদ্যার সাথে কয়েক দফা আলাপ-আলোচনার পর একটি মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেন।ডেপুটি কমিশনার জনাব এম কে আনোয়ার গোয়ালচামট এলাকার দানশীল ব্যক্তি শ্রী চন্দ্রকান্ত নাথের শরণাপন্ন হয়ে তাকে এ ব্যাপারে সাহায্য সহযোগিতা প্রদানের অনুরোধ জানান।
ডেপুটি কমিশনার সাহেবের অনুরোধে শ্রী চন্দ্রকান্ত নাথ ভাঙ্গা রাস্তার মোড়ে অবস্থিত তার এক একর দশ শতাংশ জমির উপর পাঁচটি ছোট বড় দালান ও আরো চারটি  কক্ষ মহিলাদের জন্য দান করতে সমর্থ হন। এ বিরল দান শ্রী চন্দ্রকান্ত নাথকে নারী শিক্ষা প্রসারের ব্যাপারে ইতিহাসের পাতায় স্থান করে দিয়েছে। এরপর কলেজ প্রতিষ্ঠার কাজ ও অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা দ্রুতগতিতে এগোতে থাকে। ৬ আগস্ট ১৯৬৬ সালে চন্দ্রকান্ত নাথের স্বর্গীয় জননী সারদা সুন্দরী দেবীর পুণ্য স্মৃতি কে ধারণ করে,’সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ‘নামে জেলায় প্রথম মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়।১৯৬৬-৬৭ শিক্ষা বছরে ২৯ জন ছাত্রী নিয়ে একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের ক্লাস শুরু হয়। একই বৎসর কলেজ ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের স্বীকৃতি লাভ করে। কলেজের অবস্থান শহরের পশ্চিমে জনবহুল এলাকায় প্রথম সড়ক তথা আন্তঃজেলা সড়কের একেবারে সন্নিকটে শহরের প্রধান এলাকা হতে জরাজীর্ণ সংকীর্ণ আলিমুজ্জামান সেতুর ওপর দিয়ে ছাত্রীদের যাতায়াতের অসুবিধার কারণ বিবেচনা করে কলেজ কর্তৃপক্ষ  ১৯৬৯ সালে গোয়ালচামট হতে কলেজটিতে স্থানান্তর করে।১লা মার্চ ১৯৮০ সালে কলেজটি সরকারিকরণ হয়। এরপর থেকে বিভিন্ন অধ্যক্ষের নিবিড় পরিচালনার মাধ্যমে আজকের সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর, ফরিদপুর জেলার অন্যতম শ্রেষ্ঠ নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। শুধুমাত্র ফরিদপুর জেলার নারী শিক্ষার্থী নয় অনেক প্রতিবেশি জেলার নারী শিক্ষার্থীদের সর্বপ্রথম পছন্দ বর্তমানে সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর। বর্তমানে অনলাইনে ভর্তির আবেদন করার মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে বিজ্ঞান শাখা, মানবিক শাখা, ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ছাত্রীদের ভর্তির সুযোগ রয়েছে।
 সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ, ফরিদপুর  সঠিকভাবে পরিচালনা করার জন্য রয়েছেন অধ্যক্ষ ১জন, উপধ্যক্ষ ১জন, অধ্যাপক ৩ জন (সংযুক্ত), সহযোগী অধ্যাপক ১০জন, সহকারি অধ্যাপক ১৮ জন, প্রভাষক ৩৩ জন, গ্রন্থাগারিক ১জন, সহকারী গ্রন্থাগারিক ১ জন, প্রদর্শক ৪ জন, শরীরচর্চা শিক্ষক  ১জন, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী( সরকারি)  ৯ জন, বেসরকারি কর্মচারী ২৮ জন, হোটেল কর্মচারী ১৬ জন।
শিক্ষক পরিষদ ২০২০ এর দায়িত্বে রয়েছেন
প্রফেসর কাজী গোলাম মোস্তফা
 অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত)
কাজী সাইফুদ্দিন আল মাহমুদ
 সম্পাদক
ড.মুহা: আবদুল কালাম আজাদ যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ১
 লিপিকা রানী ঘোষ
 যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ২
হাবিজ উদ্দিন মৃধা
কোষাধক্ষ্য
উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ, ফরিদপুরে রয়েছে বিজ্ঞান শাখা, মানবিক শাখা, ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় পড়ার সুযোগ। বিজ্ঞান শাখা, মানবিক শাখায় এবং ব্যবসায় শিক্ষা শাখার আবশ্যক বিষয়গুলো হচ্ছে,১) বাংলা (১০১,১০২),,২) ইংরাজি (১০৭,১০৮),,৩) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি(২৭৫)। এছাড়া রয়েছে শাখাভিত্তিক আবশ্যিক বিষয়। বিজ্ঞান শাখার আবশ্যিক বিষয় ( যে কোন তিনটি) পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, জীববিজ্ঞান অথবা উচ্চতর গণিত। বিজ্ঞান শাখার ঐচ্ছিক বিষয়( যেকোনো একটি) জীববিজ্ঞান, উচ্চতর গণিত, ভূগোল। মানবিক শাখার আবশ্যিক বিষয়( যে কোন তিনটি) অর্থনীতি, পৌরনীতি ও সুশাসন, ইতিহাস অথবা ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, সমাজকর্ম, ভূগোল, যুক্তিবিদ্যা। মানবিক শাখার ঐচ্ছিক বিষয় ( যে কোন একটি) অর্থনীতি, পৌরনীতি ও সুশাসন, যুক্তিবিদ্যা, সমাজকর্ম, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, ইসলাম শিক্ষা, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান। ব্যবসা শিক্ষা  শাখার আবশ্যিক বিষয়( যে কোন তিনটি) হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা, ফিন্যান্স ব্যাংকিং ও বিমা, অথবা উৎপাত ব্যবস্থাপনা ও বিপণন। ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ঐচ্ছিক বিষয়( যে কোন একটি) অর্থনীতি, ফিন্যান্স ব্যাংকিং ও বিমা, উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন, ভূগোল।
উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণির পর সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুরে মোট ১০ বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু রয়েছে । স্নাতক সম্মান শ্রেণীর বিভাগ সমূহ ও আসন সংখ্যা যথাক্রমে,
বাংলা বিভাগের আসন সংখ্যা ১২০, ইংরেজি বিভাগের আসন সংখ্যা ১২০, অর্থনীতি বিভাগের আসন সংখ্যা ১২০, দর্শন বিভাগের আসন সংখ্যা ১০০, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের আসন সংখ্যা ১২০ ইসলাম ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের আসন সংখ্যা ১০০, সমাজকর্ম বিভাগের আসন সংখ্যা ১৬৫, ইতিহাস বিভাগের আসন সংখ্যা ১০০, হিসাববিজ্ঞান বিভাগের আসন সংখ্যা ১৩০,ব্যবস্থাপনা বিভাগের আসন সংখ্যা ১০০।
স্নাতক সম্মান শ্রেণীর ছাড়াও সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর এর রয়েছে স্নাতকোত্তর শ্রেণি। স্নাতকোত্তর শ্রেণীর বিষয়সমূহ আসন সংখ্যা যথাক্রমে
 সমাজকর্ম বিভাগে আসন সংখ্যা ১০০, অর্থনীতি বিভাগে আসন সংখ্যা ৫০, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে আসন সংখ্যা ৫০।
সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর এর সকল ছাত্রীদের জন্য রয়েছে কলেজের নির্ধারিত পোশাক। কোমরে বেল্ট সহ সাদা প্লেইন কাপড়ের কামিজ, সাদা সালোয়ার, ওড়না, সাদা কেডস, কলেজ সময় সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। এছাড়া কলেজের ছাত্রীদের জন্য রয়েছে কিছু আচরণবিধি। কলেজের সকল প্রকার অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা অংশগ্রহণ উত্তীর্ণ হওয়া কলেজে বাধ্যতামূলক। শ্রেণিকক্ষে বোর্ড কর্তৃক নির্দেশিত ৭৫% উপস্থিতি বাধ্যতামূলক। কলেজে প্রবেশের পর কর্তৃপক্ষের লিখিত অনুমতি বা উপযুক্ত কারণ ব্যতীত কোন ছাত্রী কলেজ ক্যাম্পাস ত্যাগ করতে পারবে না। কলেজ ক্যাম্পাসে স্মার্ট এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন বহন ও ব্যবহার করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কলেজ ক্যাম্পাসে অবস্থানকালে আইডি কার্ড কলেজের পরিচয় পত্র গলায় ঝুলিয়ে রাখা বাধ্যতামূলক।
একাডেমিক কার্যক্রমের বাহিরেও সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর এর ছাত্রীদের জন্য রয়েছে বিভিন্ন ধরনের সহপাঠ কার্যক্রম। ছাত্রীদের বাহ্যিক জ্ঞান অর্জনের জন্য সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুর এর রয়েছে একটি সুসজ্জিত ও সমৃদ্ধ পাঠাগার। যেখান থেকে ছাত্রীরা লাইব্রেরী কার্ডের মাধ্যমে ১০ দিনের জন্য উত্তোলনের সুযোগ পায়। এছাড়া লাইব্রেরীতে বসে বই দৈনিক পত্রিকা শিক্ষামূলক ম্যাগাজিন পড়ার ব্যবস্থা রয়েছে সরকারি  সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুরে। বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রীদের ব্যবহারিক ক্লাসের জন্য বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ও রাসায়নিক দ্রব্যাদি তেলসমৃদ্ধ প্রতিটি বিষয়ের জন্য আলাদা গবেষণাগার রয়েছে কলেজটিতে। কলেজের ছাত্রীদের অবসর বিনোদন ও আন্তঃক্রিয়া অংশগ্রহণের জন্য খেলাধুলার বিভিন্ন সরঞ্জামাদি দিয়ে সুসজ্জিত অবস্থায় রয়েছে একটি ছাত্রী মিলনের মিলনায়তন। দেশ গঠন, সমাজসেবা ও জনকল্যাণমূলক কাজে উদ্বুদ্ধ করা ও আগ্রহ সৃষ্টির জন্য এবং দেহ ও মনের সুস্থতা বজায় রাখার জন্য কলেজে গার্ল- ইন- রোভার ইউনিটের রোভারদের জন্য সুসজ্জিত গার্ডেন রয়েছে। শৃঙ্খলা নিয়মানুবর্তিতা সুস্থতা ও দেশ গঠনে ভূমিকা রাখার জন্য বিএনসিসি এর একটি সুসজ্জিত সেনা ইউনিট রয়েছে কলেজটিতে।আর্তমানবতার সেবায় বিভিন্ন জনকল্যাণ মূলক কার্যক্রম সহ প্রতিবছর নিরাপদ রক্ত গ্রহণের জন্য কলেজের রেড ক্রিসেন্টের একটি শক্তিশালী ইউনিট বিদ্যমান।
সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ ফরিদপুরে খেলাধুলার জন্য নির্দিষ্ট একটি সুবিশাল  মাঠ ও মানসিক উৎকর্ষতা জন্য বিভিন্ন সরঞ্জাম রয়েছে। ছাত্রীরা ব্যাডমিন্টন, টেবিল টেনিস, ভলিবল ইত্যাদি নিয়মিত ভাবে অংশগ্রহণ করে থাকে,।প্রতিবছর অন্তঃকক্ষ ক্রিয়া ও বাৎসরিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আকর্ষণীয় পুরস্কার প্রদান করা হয়।ছাত্রীদের ব্যক্তিত্বের বিকাশ ও সৃজনশীল সৃজনশীল প্রতিভার উন্মেষ সাধনে সহপাঠ কার্যক্রম হিসেবে সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে। প্রতিবছরের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে একঝাঁক শিল্পীর বাছাই করা হয়ে থাকে। এছাড়া কলেজ থেকে প্রতিবছর অনন্য ‘সৃজনী’ প্রকাশ করা হয়। ছাত্রীদের মেধাবিকাশ চিত্ত বিনোদনের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন শিক্ষামূলক ও ঐতিহাসিক গুরুত্বপূর্ণ স্থান পরিদর্শনের জন্য প্রতিবছর শিক্ষা সফরের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। প্রতিবছর বার্ষিক মিলাদ মাহফিল ও হিন্দুধর্মাবলম্বী ছাত্রীদের জন্য সরস্বতী দেবীর প্রার্থনা আয়োজন করা হয়। বার্ষিক মিলাদে হাম, নাত, কিরাত ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এ মিলাদে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বিশেষ দোয়া করা হয়।প্রতি বছর কলেজে গরীব ও মেধাবী ছাত্রী কে দরিদ্র তহবিল হতে আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হয়। এছাড়া প্রতিবছর ছাত্রীদের প্রত্যক্ষ  ভোটের মাধ্যমে শ্রেণীর প্রতিনিধি নির্বাচন করা হয়। শ্রেণীর প্রতিনিধিরা সহ পাঠ্যক্রমের প্রতিনিধিত্ব করে থাকে।

Please Share This Post...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
The Daily Ganasonghoti © 2020
Design & Development By : JM IT SOLUTION
error: Content is protected !!